নড়াইল দীঘলিয়া স্কুলের শিক্ষক হাবিবকে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত

লোহাগড়া (নড়াইল) প্রতিনিধি॥ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দীঘলিয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক মোঃ আহসান হাবিব এর বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ের প্রায় ৩ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পাওয়া গেছে । এঘটনায় ওই শিক কে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ সাময়িক বরখাস্ত করাসহ কারণ দর্শানো নোটিশ দিয়েছে ।
সংশ্লিষ্ট সূত্র ও লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, ওই শিক ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির স্বার জাল করে রূপালী ব্যাংক লোহাগড়া বাজার শাখায় বিদ্যালয়ের নামীয় হিসাব নং-২০০০০৪১৬৭ হতে চলতি বছর ২২ মে ২৫ হাজার টাকা ও ১আগষ্ট ২৩ হাজার ৮শত টাকা, সোনালী ব্যাংক লীপাশা শাখায় বিদ্যালয়ের নামীয় সাধারন তহবিল হিসাব নং-৩৪০৫২০৪৫ হতে ২৩ জুলাই ২৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন। তিনি কমিটির অনুমোদন ছাড়া ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক পদে যোগদানের সাথে সাথে নিজেই নিজের বেতন বিদ্যালয়ের অংশ ৩হাজার ৬ ছয় শত টাকা ধার্য করেছেন এবং বিগত ঈদুল-ফিতরের পূর্বে নিজ ইচ্ছামত ২ হাজার ৫ শত টাকা ঈদ বোনাস হিসাবে গ্রহণ করেছেন।
৭অক্টোবর শিক-কর্মচারীদের ঈদ ও পূজার বোনাস প্রদানের ল্েয উভয় ব্যাংকে স্থিতি অর্থের পরিমান জানতে গিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক আহসান হাবিবের চেক জালিয়াতী ও অর্থ চুরির বিষয় ধরা পড়ে। তিনি পূর্বের সংরতি চেক বই থেকে চেক ব্যবহার না করে ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের স্বার জাল করে জাল রেজুলেশন করে থানায় ডায়রী করে নতুন চেক বই তুলে অতি কৌশলে বিদ্যালয়ের অর্থ চুরি করেছেন। আহসান হাবিব চলতি বছর ৬এপ্রিল থেকে ৮অক্টোবর পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন । অভিযুক্ত ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক আহসান হাবিবকে ৯অক্টোবর সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে এবং কেন চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হবে না তা নোটিশ প্রাপ্তির ৭দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে ।
বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি শেখ লতিফুর রহমান পলাশ জানান, শিক মোঃ আহসান হাবিবের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাত ও বিবিধ অভিযোগে লোহাগড়া থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। তার কাছ থেকে জাল রেজুলেশন খাতা ও চেক বই উদ্ধার করা প্রয়োজন বলেও তিনি জানান। অভিযুক্ত শিক মোঃ আহসান হাবিব ফোনে জানান, এসব অভিযোগ মিথ্যা। নোটিশ পেলে জবাব দেবো । ওই বিদ্যালয়ের বর্তমান প্রধান শিক মোঃ আইয়ুব হোসেন মল্লিক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন ।

শেয়ার