কঠোর অবস্থানে শেখ হাসিনা

Hasina
সমাজের কথা ডেস্ক॥ সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন অনুষ্ঠানে কোনো বাধা সৃষ্টি না করতে বিরোধী দলকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
সেই সঙ্গে বিরোধী দলের বিরোধিতা সত্ত্বেও সংসদের চলতি অধিবেশন চালিয়ে নেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।
আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা রোববার দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে বলেন, “বিরোধী দলের নেতা বলছেন, রোজ কেয়ামত নেমে আসবে।
“আপনি রোজ কেয়ামত নামিয়ে আনবেন? আমরা জনগণকে রায় যা করার তাই করব, অতীতেও যা করেছি।”
বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নির্দলীয় সরকারের অধীনে না হলে আসন্ন সংসদ নির্বাচন প্রতিহতের ঘোষণা দিয়েছেন। তার ওই হুমকির জবাবই গণভবনে দলের সভায় দিলেন শেখ হাসিনা।
সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনের ফলে এখন সংসদের মেয়াদ শেষের আগের ৯০ দিনের মধ্যে অর্থাৎ ২৫ অক্টোবর থেকে ২৪ জানুয়ারির মধ্যে আগামী সংসদ নির্বাচন হবে। এই সময়ে সরকারে থাকে আওয়ামী লীগ এবং সংসদও বহাল থাকবে।
দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে বিএনপি নির্দলীয় সরকারের দাবি জানিয়ে এলেও শেখ হাসিনা বরাবরেই তা প্রত্যাখ্যান করে সংবিধান অনুসরণের কথা দৃঢ়ভাবে বলে আসছেন।
সংসদের চলতি অধিবেশন ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত চালানোর সিদ্ধান্ত রয়েছে কার্যউপদেষ্টা কমিটির।
সরকার পতনে ২৫ অক্টোবর থেকে আন্দোলনে বিরোধী দলের হুমকির পর সরকারি দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা চলতি অধিবেশন চালিয়ে যাওয়ার দাবি তুলেছেন।
গণভবনে বক্তব্যে শেখ হাসিনাও বলেন, সংবিধান অনুযায়ী অধিবেশন চালানোয় কোনো বাধা নেই।
“২৪ তারিখের পর সংসদ চলতে পারবে না, এটা সংবিধানের কোথাও লেখা নেই। শুধু ৬০ দিনের বাধ্যবাধকতা শিথিল করা হয়েছে।”
“পার্লামেন্ট বসতে পারে শিডিউল (নির্বাচনের) ঘোষণার আগের দিন পর্যন্ত। আর সংসদে ভেঙে দিলেও রাষ্ট্রপতি চাইলে অধিবেশন ডাকতে পারেন।”

শেয়ার