২৮শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
যশোরে ডেঙ্গু ১৯ রোগী
যশোরে আরও ১৯ রোগী : ডেঙ্গু প্রতিরোধে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : যশোরে ডেঙ্গু প্রতিরোধের লক্ষে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। সোমবার বেলা ১১টার দিকে শহরের দড়াটানা ও এর আশ-পাশের এলাকায় সিভিল সার্জন ডাক্তার বিপ্লব কান্তি বিশ্বাসের নেতৃত্বে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করা হয়।


এদিকে যশোরে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯জনের শরীরে নতুন করে ডেঙ্গুর উপসর্গ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে যশোর ২৫০শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গুর ১০জন নতুন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। তবে এসময় সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছেন ১২জন।
যশোর হাসপাতালের ডেঙ্গু কর্নারের ইনর্চাজ হাসি আরা বেগম জানান, হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় (অর্থাৎ রোববার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত) ডেঙ্গুরোগে আক্রান্ত হয়ে মহিলাসহ ১০জন ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে হাসপাতালে ডেঙ্গু ওয়ার্ডে ৩২জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


এদিকে যশোর সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুরোগে আক্রান্ত হয়ে মহিলাসহ ১৯জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর মধ্যে জেনারেল হাসপাতালে ১০জন, অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩জন, বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ২জন, মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১জন এবং কেশবপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৩জন চিকিৎসা নিচ্ছেন। অপরদিকে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে ২৪জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত জেলায় মোট ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন ২১৪জন। এর মধ্যে ২জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬২জন। বর্তমানে জেলায় ৫০জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


অপরদিকে যশোরে ডেঙ্গু প্রতিরোধের লক্ষে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য শহরের দড়াটানা, বড়বাজার এবং এর আশ-পাশের এলাকায় সিভিল সার্জন ডাক্তার বিপ্লব কান্তি বিশ্বাসের নেতৃত্বে পথসভা ও লিফলেট বিতরণ করা হয়। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাক্তার নাজমুস সাদিক, মেডিকেল অফিসার ডাক্তার রেহেনেওয়াজ, ডাক্তার দীপঙ্কর ভট্টাচার্য, ডাক্তার অনুপম দাস, ডাক্তার তাইফুর আজিজ খান, ডাক্তার রুমানা আক্তার, ডাক্তার সাবরিনা মমতাজ, ডাক্তার সামিনা পারভীন, সিভিল সার্জন অফিসের কীটতত্ত্ববিদ আমিনুল হক, জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর শিশির কান্তি পাল প্রমুখ।


পথসভায় সিভিল সার্জন ডাক্তার বিপ্লব কান্তি বিশ্বাস বলেন,‘ডেঙ্গু একটি ভাইরাসজনিত রোগ যা এডিস মশার মাধ্যমে ছড়ায়। সাধারণ চিকিৎসাতেই ডেঙ্গু জ্বর সেরে যায়। তবে ডেঙ্গু শক সিনড্রোম এবং হেমোরেজিক ডেঙ্গু জ্বর মারাত্মক হতে পারে। বর্ষার সময় সাধারণত এ রোগের প্রকোপ দেখা দেয়। এডিস মশার বংশবৃদ্ধি রোধের মাধ্যমে ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধ করতে হবে।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০১৭১১-১৮২০২১, ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
পুরাতন খবর
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram