১৮ই এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
নরসিংদীতে অগ্নিকান্ড
নিভেছে নরসিংদীর আগুন, ক্ষতি শতকোটি টাকার

সমাজের কথা ডেস্ক : দেশের সর্ববৃহৎ পাইকারি কাপড়ের হাট নরসিংদীর শেখেরচর—বাবুরহাটে স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে গেলো রাতে। ইতোমধ্যে আগুন পুরোপুরি নিভে গেছে।

আগুনে বাজারের ছোট বড় ৮০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় শত কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়ীরা।

গতকাল রবিবার রাত ১১টার দিকে নরসিংদী সদর উপজেলার শেখেরচর বাজারের উত্তর পশ্চিম পাশে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরবর্তী প্রধান গলিতে এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও দোকান মালিকরা জানান, রাত ১১টার দিকে একটি সাটিং শুটিংয়ের দোকানের ভেতর আগুন জ্বলতে দেখে তারা তাৎক্ষণিক ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়।

খবর পেয়ে ১০ মিনিটের মধ্যে মাধবদী ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট উপস্থিত হয়ে আগুন নেভানোর কাজ শুরু করে। পুড়ে যাওয়া দোকানগুলোর অধিকাংশই থ্রিপিস ও থান কাপড়ের হওয়ার সুবাদে আগুন দ্রুত চারপাশের শতাধিক দোকানে ছড়িয়ে পড়ে।

পরে পলাশ, নরসিংদী, বেলাব, রায়পুরা, মনোহরদী ও আড়াইহাজারসহ ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিটের দমকল কর্মীরা একযোগে কাজ শুরু করে। ততক্ষণে প্রায় ৮০টি দোকানের মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা জানান, হঠাৎ করেই একটি থ্রিপিসের দোকান থেকে আগুনের সূত্রপাত শুরু হয়। আগুন মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে বেশ কয়েকটি দোকানে। গলি ছোট হওয়ার কারণে ফায়ার সার্ভিস ভেতরে প্রবেশ করতে পারেনি।

দূর থেকে পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন তারা। যদি আরও আগে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হতো তাহলে ক্ষতির পরিমাণ অনেক কম হতো।

বাবুরহাট বাজার বণিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান ভূঁইয়া বলেন, কী কারণে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে সেটির কারণ এখনো জানা যায়নি। তবে ব্যবসায়ীরা অনেক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এ রকম আগুন অতীতে কখনো এ বাজারে লাগেনি।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘আমরা পাশের নদী থেকে পানি নিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হই। তবে কী কারণে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে সেটি এখনো বলা সম্ভব নয়।

আমরা তদন্ত করে বের করব আগুনের আসল কারণ। প্রায় ৮০টি দোকান পুড়ে গেছে। ’ তবে এতে কোনো হতাহত এবং প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে নরসিংদী জেলা প্রশাসক বদিউল আলম, পুলিশ সুপার মুস্তাফিজুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম তালেব হোসেন, বাজার কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ব্যাবসায়ী নেতাকর্মীরা ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০১৭১১-১৮২০২১, ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
পুরাতন খবর
FriSatSunMonTueWedThu
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930 
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram