২৩শে এপ্রিল ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
কমেছে মাছ মাংস ডিম ও সবজির দাম
29 বার পঠিত

মনিরুজ্জামান মনির : যশোরের বাজারে মাছ, মাংস ও ডিমের দাম কমতে শুরু করেছে। পাশাপাশি শীতকালীন সবজির দাম কম থাকায় স্বস্থিতে আছে মধ্যবিত্ত ও নিম্নমধ্যবিত্ত মানুষ ।

কয়েকদিন আগেও যশোরের বাজারে গরুর মাংসের দাম ছিল প্রতি কেজি ৭৫০ টাকা। বর্তমানে দাম কমে ৬০০ থেকে ৬৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। দুএকজন বিক্রেতা ৫৮০টাকা কেজি দরেও বিক্রি করছেন। গরুর মাংসের দাম কমে যাওয়ার প্রভাব পড়েছে মুরগীতে। বয়লার মুরগী বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা কেজি দরে। যা আগে ছিল ২৬০ থেকে ২৮০ টাকা। সাড়ে তিনশ টাকার সোনালি মুরগি প্রতি কেজি ২৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মাছের দামও কমতির দিকে।

ভারত থেকে ডিম আমদানি পর থেকে স্বস্থিতে আছেন ক্রেতারা। ডজনে প্রায় ৩৫ টাকা কমে প্রতিপিস ডিম বিক্রি হচ্ছে সাড়ে ৮ টাকায়। সাদা ডিম ডজন ৯৬ থেকে ১০৮ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে তেলাপিয়া, পাঙাশ, রুই, কই ও শিং মাছের দামও কেজি প্রতি ২০ থেকে ৫০ টাকা কমেছে। মাঝারি ও ছোট আকারের তেলাপিয়া ও পাঙাশ বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। চাষের কৈ ১৭০ থেকে ২’শ টাকা কেজি দামে বিক্রি হচ্ছে। শিং মাছ ৩৫০ টাকা কেজিতে নেমে এসেছে। চাষের রুই কেজি পড়ছে ৩’শ থেকে ৪’শ টাকা। অন্যান্য মাছের দাম কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা কমেছে।

বাজারে সবজির দাম কম থায় ক্রেতারা বেশি বেশি কিনছেন। ফুলকপি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা, বাঁধাকপি ২০ থেকে ৩০ টাকা, সিম ২৫ থেকে ৩০ টাকা, লালশাক ৫ থেকে ৮ টাকা, পালংশাক ১০ থেকে ১৫ টাকা, টমেটো ৬০ থেকে ৭০ টাকা, ও মূলা ৮ থেকে ১২ টাকা কেজি পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। শাক—সবজির দাম কমেছে কেজিতে ২০ থেকে ৫০ টাকা।

যশোর কাঠেরপুলের মাংস ব্যবসায়ি খোকন জানান, গরুর মাংস বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৬৫০ টাকা। কিন্তু ৩ মাস আগে এ মাংস বিক্রি করছি ৭৫০ টাকা কেজি।
যশোর বড় বাজারের পাইকারি ডিম ব্যবসায়ী আব্দুস সাত্তার জানান, ডর্জনে ডিমের দাম ৩০—৪০ টাকা কমেছে। সব কিছু দাম কমার পরে চাহিদা বাড়ে। তারপরও এ সময় মুরগিতে ডিম বেশি দেয়। আবার ভারত থেকেও ডিম আসছে। বাজারে মাংসের দামও কম এবং শীতের সবজির পরিমাণও বেশি বেড়ে যাওয়ায় ডিমের ওপর চাপ কমে গেছে।

যশোর বড় বাজারের মাছ ব্যবসায়ি শহিদুল ইসলাম জানান, মাছ এ মাসে আামদানি বেশি হয়। আবার চাহিদাও কম থাকে। বাজারে সব মাছেৃর দাম কম। আরো কমতে পারে।

খাজুরা বাজারের মাছ বিক্রেতা তপন জানান, বেচাকেনা আগের তুলনায় অনেক কম। মাছের দাম কেজি প্রতি ২০—৩০ টাকা কমেছে। আগের তুলনায় বাজারে মাছের চাপ বেশি। আবার মাংসের দাম কম হওয়ায় মাছের বাজারেও প্রভাব পড়েছে। এ কারণে মাছ কম দামেই ছাড়তে হচ্ছে। তবে মাছের দাম কম থাকায় ক্রেতাদের চাপ বেশি।

সবজি ব্যবসায়ি নির্মল শাহা জানান, বর্তমানে শাক—সবজির দাম অনেক কম। ১ মাস আগে এ সবজির দাম খুব বেশি ছিল।
ক্রেতা শাহাজান শেখ জানান, বাজারে ডিম, মাংস, মাছ ও সবজির দাম কমায় কিনে খেতে পারছি। এখন বাজারে ডিম—মাছের দাম অনেক কমেছে।

যশোর রেল গেটের ক্রেতা মানিক সরকার জানান, সবজি থেকে শুরু করে মাছ ও মাংসের দাম কমেছে। কয়েক দিন আগে তো সবজি মাছ কেনার মত ছিল না। এরপর ডিমের দামও ভালোই কমেছে। এভাবে কম থাকলে সাধারণ মানুষ বাঁচতে পারবে। সবজির দাম কমেছে কেজিতে ২০ থেকে ২৫ টাকা। স্বস্তিতে বাজার করতে পারছি।

সম্পাদক ও প্রকাশক : শাহীন চাকলাদার  |  ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আমিনুর রহমান মামুন।
১৩৬, গোহাটা রোড, লোহাপট্টি, যশোর।
ফোন : বার্তা বিভাগ : ০১৭১১-১৮২০২১, ০২৪৭৭৭৬৬৪২৭, ০১৭১২-৬১১৭০৭, বিজ্ঞাপন : ০১৭১১-১৮৬৫৪৩
Email : samajerkatha@gmail.com
পুরাতন খবর
FriSatSunMonTueWedThu
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930 
স্বত্ব © samajerkatha :- ২০২০-২০২২
crossmenu linkedin facebook pinterest youtube rss twitter instagram facebook-blank rss-blank linkedin-blank pinterest youtube twitter instagram