16.7 C
Jessore, BD
শুক্রবার, নভেম্বর ২৪, ২০১৭

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

শীত পড়েছে অঘ্রাণে, তার- দিনের বেলায় ওম, কখনো তাই ঠান্ডা লাগে কখনো গরম। পরিবেশের একি দশা নাকের ডগায় যম, থাকতে হবে হিসেব কষে লড়তে হবে কম।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

আয়রে সোনা, চাঁদের কণা পরির দেশে যাই, যে দেশেতে থাকবে মানুষ স্বপ্নছোঁয়া না’য়। সে নাও-এতে থাকবে ফসল সবজি ছড়ানো, থাকবে না’ক সিন্ডিকেটের হিসাব জড়ানো।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

পরিবেশে বৈরি হাওয়া বইছে বাতাশেতে ময়লা, সীসা রইছে সংস্থারা এমন কথা কইছে তবুও মানুষ ক্যামনে এসব সইছে?

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

ফুটছে বোমা দুরুম-দারাম দু-একটা তার হসপিটালে এই ভাবনায় কাঁপছে হৃদয় যদি পড়ে মনের চালে? সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদী কাজগুলো সব করছে কারা ? বুঝেও যে চুপ থাকছে মানুষ থাকছে নিরব সকল পাড়া।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

হচ্ছে বিচার-আচার তবু থামছে না তো হট্টোগোল, কমছে নাতো অনাচার। আর- বাড়ছে ত্রাস ও জঙ্গিরোল। তাইতো বিচার করতে হবে খুব দ্রুতগতির সাথে, অপরাধের ঘেটি য্যানো না বাড়ে আর দিনে রাতে।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

বাংলাদেশের ছয়টি ঋতু ঋতু গ্যালো কোই, হেমন্ততেও বৃষ্টি দ্যাখো করছে যে হৈ চৈ। ধান কাটা শেষ, মন ভেসে যায় অগ্রহায়নের মাঠে, ঠান্ডা ইমেজ বর্ষা-মাঝে শীত ছোঁয়াতে কাটে।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

ডিজিটালে কত্তোকিছু যায় পাঠানো ভাইবারে, টেঙ্গো, ইমো, হোয়াটস অ্যাপও তার- সাথে জালো, টুইটারে। মিট মি ছাড়াও আছে আরও ইন্সটাগ্রাম ও ম্যাসেঞ্জার, স্কাইপি, লাইন, ভিগো ও তার- সাথে ডেট আই, ট্রু-কলার।  

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

চারিদিকে উড়ছে পদক তার মদকে কেউ মাতাল কেউ তা আবার না পেয়ে ভাই তিলকে করছে গাছের তাল। আকাশ পাতাল খুঁড়ছে বা কেউ ধরতে গিয়ে কালের হাল, স্রোতের ঢেউয়ে গা ভাসিয়ে দিচ্ছে...

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

উড়ছে মাদক, পড়ছে ধরা গড়ছে কারা রাজত্ব? করছে কারা এসব ওসব কারা ওরা (?) দে’দৈত্য! খুঁজতে হবে, বুঝতে হবে ভরতে হবে কারাগার, আগাছা সব বাছতে হবে করতে সমাজ ফেরোদ্ধার।  

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

বাজিয়ে বগল নদী দখল করছে কারা কে জানে! চোখ দিয়ে যা যায় না দ্যাখা (!) ইশারা আর কে মানে? জেলায় জেলায় পাড় দখলের চলছে ব্যবসা ধুন্ধুমার, এসব কিছু দেখতে মানা লিখতে...