শুক্রবার, মে 25, 2018

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

পরের তেলে মাছ ভেজে যাও রমজানেও খ্যন্ত নেই? রং মোছেনি চরিত্রতে পূর্বাপর একই সেই! ভেজাল টাকায় ধর্মের কাজ জমছে দেখি বেশ, ইবাদত হোক যেমন-তেমন খাওয়াটা যম্পেশ!

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

পান বিড়ি আর জর্দা সাথে ভাতের সাথে লবণ পাতে খান তেলে তাঁত তরকারি? সুস্বাদু সব? দারুন? বেজায়? রান্না কিবা কল্কেও চায়? ভরবে অসুখ- ঘরবাড়ি।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

রহমতের এই রমজানে ঘরে বাইরে সবখানে ধৈর্য্য সাধনা নিয়ে- আল্লাহ-খুশি মন টানে। তারাবিহ আর সেহরিতে নিয়েত করে রোজ রীতে সারাদিনের খোদার ভয়ে- চাই ক্ষমা ইফতারিতে।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

খাদ্যে ভেজাল পদ্যে ভেজাল ভেজাল সারা দুনিয়ায়, দিচ্ছে ভেজাল খাচ্ছি ভেজাল কার কী তাতে আসে যায়! ভেজাল ফাঁদে জিম্মি সবাই ভেজাল এখন সততায়, কিন্তু ভেজাল রুখবে কারা (?) তাদের ঘুমে ভেজাল...

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

রোজার মাসে বাজার-দরে নেইতো কোনো সংযম, নানান রকম অযুহাতে কাট্ছে পকেট হরদম। বিক্রেতাদের সিন্ডিকেটে বন্দি ক্রেতার নাভিশ্বাস, চোখ বুজে ভাই ভাবো এটি সিয়াম সাধনার মাস।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

পাকা পাকা আমগুলো ভরা ঝাঁকাঝাঁকা টসটসে মিঠা রঙ আঁটি সব ফাঁকা। অসাদু ব্যবসা-মোড়া টাকা টাকা মন, জানে না মানবতা বোঝে না স্বজন।

ছন্দকথা প্রতিদিন – সৈয়দ আহসান কবীর

মেঘে মেঘে ঢেকে আছে আকাশ তারই মাঝে ঠান্ডা হাওয়া বাতাস সেখানে এখান জমছে নানান পানি পরিবেশের এমনই হাল জানি

ছন্দকথা প্রতিদিন

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ছুটছে মহাকাশে গর্বিত আজ স্বদেশবাসী আনন্দে বুক ভাসে। উন্নয়নের ধারায় আজি যুক্ত মহাকাশ নতুন চূড়ায় আরোহনের জাগছে অভিলাষ।

ছন্দকথা প্রতিদিন

এই যে আকাশ শুনছো কিছু? মেঘ ছুটেছে পিছু পিছু বৃষ্টি সোনার বায়নাতে বর্ষা মেয়ের আয়নাতে। এই যে বাতাশ বলছো কিছু? মাখছো কি মেঘ, বর্ষা কিছু? কালবোশেখীর হুঙ্কারে শিলাপানির ঝঙ্কারে।

ছন্দকথা প্রতিদিন

সুস্থ থাকুন এই পৃথিবীর আছেন যতো মায়েরা, সুস্থ থাকুন তারই সাথে আছেন যারা বাপেরা। সুস্থ থাকুক সন্তানেরা রক্তজোড়া ভাইয়েরা সুস্থ থাকুক স্বজন, আপন চোখের মনি বোনেরা।