সংস্কার চলছে যশোরের পাঁচ মহাসড়কে

# ঈদের আগেই হবে চলাচলের উপযোগী, স্বস্তিতে ঘরে
ফেরার আশাবাদ

সালমান হাসান
ঈদের সময় ঘরমুখী মানুষের যাত্রাপথের দুর্ভোগ লাঘবের জন্য যশোরের পাঁচ মহাসড়কে সংস্কার কাজ চলছে। ইট বিছিয়ে ও বিটুমিন কার্পেটিং করে ছোট বড় গর্ত ও খানাখন্দ মেরামত করা হচ্ছে। ফলে যশোর- নড়াইল, যশোর-খুলনা, যশোর-মাগুরা ও যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কে যানচলাচলের দীর্ঘ দিনের ভোগান্তি কমে আসছে। রোজার মধ্যেই এসব মহাসড়ক সংস্কার শেষ হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।
সড়ক ও জনপথ বিভাগের যশোর কার্যালয় সূত্র জানায়, কার্যাদেশ দেয়ার পর যশোর-খুলনা মহাসড়ক পুনঃনির্মাণের কাজ শুরু করেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। যশোর শহরের পালবাড়ি থেকে সদরের পদ্মবিলা পর্যন্ত ১৯ কিলোমিটারের নির্মাণ কাজ করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তাহের ব্রাদার্স ও মাহাবুব ব্রাদার্স। ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠান দুটি শর্তানুযায়ী এই ১৯ কিলোমিটার অংশের সংস্কার কাজ সম্পন্ন করেছে। ঈদকে সামনে রেখে আপাতত এ অংশের গর্ত ও খানাখন্দ সংস্কার করা হয়েছে। পরবর্তীতে পুনঃনির্মাণ কাজ শুরু হবে। এ মহাসড়কের অপর ১৯ কিলোমিটারের পুনঃনির্মাণ কাজ করছে তমা কন্সট্রাকশন। কার্যাদেশ পাবার পর এই ১৯ কিলোমিটারের ভাঙাচোরা, খানাখন্দ ও গর্ত সংস্কার করেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। পাশাপাশি অভয়নগরের প্রেমবাগ, চেঙ্গুটিয়ার আলীপুর থেকে ভাঙাগেট পর্যন্ত মহাসড়ক পুনরায় নির্মাণের কাজ করেছে। এদিকে সংসদীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক সংস্কার কাজ শেষ হয়েছে। এ সড়কটির বড় বড় গর্তে ইটের সলিং করে বালি বিছিয়ে মেরামত করা হয়েছে। পাশাপাশি ছোটখাট গর্ত ও খানাখন্দ সংস্কার করা হয়েছে বিটুমিন- পাথর দিয়ে। এ মহাসড়কে সবচে বড় সংস্কার কাজ করা হয়েছে ঝিকরগাছা ব্রিজ, মহিলা কলেজ মোড় ও যশোর শহরের ডালমিল এলাকায়। এদিকে প্রিয়ডিক মেজর মেইনটেনেন্স (পিএমপি) কর্মসূচির মাধ্যমে সংস্কার হয়েছে যশোর-নড়াইল মহাসড়কের সাড়ে নয় কিলোমিটার। বিটুমিন কার্পেটিং করে মহাসড়কটির সংস্কার করা হয়েছে। অপরদিকে যশোর-মাগুরা মহাসড়কের ২২ কিলোমিটারের মধ্যে চলাচলের অনুপযোগী ১৩ কিলোমিটারের সংস্কার কাজ চলমান রয়েছে। এ মহাসড়কের নিউ মার্কেট এলাকার পাশাপাশি খাজুরা বাজার থেকে সীমাখালি পর্যন্ত সংস্কার চলছে। ইতিমধ্যে সড়কের এসব অংশে এক পরত (এক স্তর) বিটুমিন কার্পেটিং করা হয়েছে। শিগগিরি আরেক পরত বিটুমিন কার্পেটিং করা হবে। এছাড়া সড়ক বিভাগ যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের ভাঙাচোরা অংশ সংস্কার করেছে।
সড়ক ও জনপথ বিভাগের যশোর কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম জানিয়েছেন, লক্ষ্য ও পরিকল্পনা অনুযায়ী মহাসড়ক সংস্কারের কাজ শেষের পথে। শিগগিরিই যশোরের সবকটি সহাসড়ক যানবাহন চলাচলের উপযোগী হয়ে উঠবে। ফলে ঈদের সময় ভোগান্তির কোন আশংকা থাকছে না। এর পরও কোন সমস্যা সংকট দেখা দিলে সেটির দ্রুত সমাধানের জন্য সার্বিক প্রস্তুতি রাখা হয়েছে।

 

SHARE