পাইকগাছায় মাদক বিক্রেতা রহমতসহ সপরিবারে আটক

আব্দুল আজিজ, পাইকগাছা ॥ পাইকগাছা থানা পুলিশ মাদক দ্রব্যসহ মাদক বিক্রেতা রহমতসহ পরিবারের ৪ সদস্যকে করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে বাড়িতে অভিযান চালিয়ে পুলিশ দুই মেয়েসহ রহমত দম্পতিকে আটক করে। এ সময় রহমতের পরিবার দা বটি নিয়ে হামলা শুরু করে। পুলিশ প্রতিহত করতে সমর্থ হলেও ধস্তাধস্তিতে ৫ পুলিশ কমবেশি আহত হন। এ ঘটনায় থানায় পুলিশের উপর হামলা ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে। ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব ও ওসি (তদন্ত) এসএম শাহাদাৎ হোসেনের নেতৃত্বে থানা পুলিশের বিশেষ একটি টিম মঙ্গলবার দুপুরে এলাকার মাদক সম্রাট হিসাবে খ্যাত রহমত আলীর পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে সরল গ্রামের বাড়িতে অভিযান চালান। অভিযানে থানার কয়েকজন কর্মকর্তা অংশ নেন। অভিযানকালে বসতবাড়ি থেকে মাদক উদ্ধারকালে রহমতের পরিবার ধারালো দা-বটি নিয়ে পুলিশের উপর চড়াও হয়। এ সময় তাদের সাথে ধস্তাধস্তিতে পুলিশের এএসআই পিয্যুষ হালদার, কনেস্টেবল হেলাল খান, আল আমিন, বাপ্পি সরদার ও জেসমিন সুলতানাসহ ৫ পুলিশ কমবেশি আহত হন। পুলিশ বসত ঘর থেকে ৫শ গ্রাম গাঁজা ও ৫৫ পিচ ইয়াবা উদ্ধারসহ একাধিক মাদক মামলার আসামি মাদক বিক্রেতা রহমত আলী গাজী (৫৫), রহমতের স্ত্রী আবিরণ বেগম (৪০), মেয়ে সুমা বেগম (২২) ও মৌসুমি খাতুনকে (২০) আটক করে। ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, আহতদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের উপর হামলা ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে এসআই নাজমুল ইসলাম বাদি হয়ে আটককৃতদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেছেন। যার নং-৩৩, তাং-২২/০৫/২০১৮ ইং। থানার ওসি আরও জানান, রহমত একজন চিহ্নিত শীর্ষ স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী। তার পরিবারের সবাই মাদক ব্যবসায়ের সাথে জড়িত। এরআগে থানায় ২০১৩ হতে ২০১৭ সাল পর্যন্ত রহমতের নামে ১০টি মাদক মামলা রয়েছে। ২০১৭ সালের ৬ আগস্ট সর্বশেষ রহমতকে আটক করা হয় বলে পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান।

SHARE