সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জ এলাকায় দু’দিনে ১৩ জেলে অপহরণ

আব্দুল জলিল, সাতক্ষীরা॥ সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের চালতেবাড়িয়া খাল থেকে মুক্তিপণের দাবিতে আরও ৬ জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যু কাজল বাহিনীর সদস্যরা। সোমবার ভোরে সুন্দবনের চালতেবাড়িয়া খালে কাঁকড়া শিকারের সময় তাদের অপহরণ করা হয়। এ সময় ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে আসেন দুই জেলে। অন্যদের মুক্তি পেতে ৩ লাখ টাকা দিতে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে। এনিয়ে দু’দিনে তারা ১৩ জেলেকে অপহরণ করলো।
অপহৃত জেলেরা হলেন, শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের সিংহরতলী গ্রামের হোসেন গাজীর ছেলে আব্দুল মজিদ গাজী (৩৩), একই গ্রামের মৃত এন্তাজ গাজীর ছেলে সৈয়দ আলী গাজী (৪০), অনিল ভাঙীর ছেলে বাসুরাম ভাঙী (৩৯), দাউদ গাজীর ছেলে লিয়াকত গাজী (৪৫), মফিজুল ইসলাম (৩৫) ও ফজলু গাজীর ছেলে সোহাগ হোসেন (২৫)। মুক্তিপণ দিয়ে ফিরে আসা জেলেরা হলেন, মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের চুনকুড়ি গ্রামের অছির উদ্দীন গাজীর ছেলে রবিউল ইসলাম ও দক্ষিণ কদমতলা গ্রামের নুর ইসলাম মোল্যার ছেলে আব্দুল্লাহ মোল্যা। স্থানীয় চুনকুড়ি গ্রামের শওকত, মমিন ও বিশ^জিত জানান, গত এক সপ্তাহ আগে কদমতলা বন অফিস থেকে বৈধভাবে পাশ নিয়ে তারা সুন্দরবনে যান কাঁকড়া শিকার করতে। সোমবার ভোরে সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জের চালতেবাড়িয়া খালে কাঁকড়া শিকার করার সময় জনপ্রতি ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণের দাবিতে বনদস্যু কাজল বাহিনীর সদস্যরা তাদের অপহরণ করে।
বনবিভাগ সাতক্ষীরা রেঞ্জের কদমতলা স্টেশন কর্মকর্তা নাসির উদ্দীন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বনদস্যু কাজল বাহিনীর সদস্যরা মুক্তিপণের দাবিতে তাদের অপহরণ করেছে বলে তিনি লোকমুখে জানতে পেরেছেন।
উল্লেখ্য ঃ এনিয়ে গত দুই দিনে সুন্দরবন সাতক্ষীরা রেঞ্জ থেকে মুক্তিপণের দাবিতে ১৩ জেলেকে অপহরণ করেছে বনদস্যু কাজল বাহিনীর সদস্যরা।

SHARE