পাটকেলঘাটায় গণহত্যার শিকার ৭৯ গ্রামবাসীর স্মরণে সভা অনুষ্ঠিত

পাটকেলঘাটা প্রতিনিধি॥ পাটকেলঘাটার পার কুমিরা পুটিয়াখালীতে বর্বর গণহত্যায় নিহত শহীদদের স্মরণে সভা সোমবার সন্ধ্যা ৬টায় পাচ রাস্তা মোড় শহীদ আলাউদ্দীন চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। বধ্যভূমি সংরক্ষণ কমিটির আয়োজনে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তালা উপজেলা আ’লীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম। উপজেলা আ’লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শেখ আব্দুল হাইর পরিচালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা বিশ্বাস জাহাঙ্গীর আলম,ইসলামকাটি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল আজিজ,তালা উপজেলা জাসদের সভাপতি বিশ্বাস আবুল কাসেম, কুমিরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মোড়ল, মাগুরা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হান্নান, তালা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সরদার মশিয়ার রহমান, আওয়ামীলীগে যোগদানকারী নেতা প্রভাষক আব্দুল গফ্ফর,প্রভাষক আমিনুজ্জামান ও তালা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ সাদী। বধ্যভূমি সংরক্ষণ কমিটির আয়োজনে বিকালে শোকর‌্যালি মোমবাতি প্রজ্বলন ও সকালে শহীদদের গনকবরে পুস্পমাল্য অর্পন সহ নানা কর্মসুচি পালিত হয়েছে। উল্লেখ্য ১৯৭১ সালের ২৩ এপ্রিল পাটকেলঘাটার সন্নিকটে পারকুমিরা নামক স্থানে ৭৯জন গ্রামবাসীকে পাকসেনারা ব্রাশ ফায়ার করে হত্যা করে। এর মধ্যে ৪৯জনের লাশ পারকুমিরার বধ্যভূমিতে মাটি চাপা দিয়ে রাখা হয়। কাশীপুর গ্রামের শেখ হয়দার আলীকে পাকসেনারা গায়ে পাট জড়িয়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারে। শহীদ পরিবারের সন্তান তালা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম সেদিনের সেই বর্বরোচিত হত্যাযজ্ঞের লোমহর্ষক কাহিনী বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, সেদিন ছিল শুক্রবার। মসজিদে জুম্মার আযান হচ্ছিল এ সময় পাটকেলঘাটা থেকে পাকিস্তানী হায়নারা বীর দর্পে পারকুমিরায় গিয়ে নিরীহ গ্রামবাসীকে আলোচনার কথা বলে একত্রিত করে। এ সময় সহজ সরল গ্রামবাসীর উপর ব্রাশ ফায়ার করলে ঘটনাস্থলেই ৭৯জন নিহত হয়।

SHARE