শিক্ষককে ফাঁদে ফেলে মোটা টাকা হাতাতে মরিয়া বাঘারপাড়ার এক চক্র

শালিখা প্রতিনিধি ॥ যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার গাইদগাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারি শিক্ষককে ফাঁদে ফেলে মোটা অংকের চাঁদা দাবির অভিযোগ পাওয়া গেছে। দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেয়ায় নানাভাবে হুমকি ধামকি দিচ্ছে চাঁদাবাজের সহযোগিরা।
অভিযোগে জানা গেছে, ইউপি নির্বাচনের সময় গাইদগাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মহাদেব কুমার মন্ডল তাপস গ্রুপের বিপক্ষে থাকায় দেখে নেয়ার হুমকি দেয়া হয়। ঘটনার ধারা বাহিকতায় তাপস বিদেশ যাবার জন্য মহাদেব কুমারের নিকট ৭ লাখ টাকা দিয়েছিল বলে প্রচার করে। এ ব্যাপারে তাপস কুমার বাঘারপাড়া উপজেলার ২নং বন্দবিলা ইউনিয়ন পরিষদে মহাদেব কুমার মন্ডলের নামে টাকা নেয়ার অভিযোগ করে। অভিযোগে সে উল্লেখ করে মহাদেব তার ভগ্নিপতির মাধ্যমে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে তার নিকট থেকে ৭ লাখ টাকা নেয় এবং সে বিদেশে যাওয়ার পর তাকে সেখান থেকে ফেরত আসতে হয়। প্রকৃতপক্ষে ঐ শিক্ষক কোন প্রকার আদম ব্যবসার সাথে জড়িত নয়। কোন কালেই তিনি এসব ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন না বলে জানিয়েছেন গ্রামের অধিকাংশ মানুষ। তার সহকর্মীরা বলছেন আমাদের শিক্ষক কখনোই আদম ব্যবসা কিংবা কোন প্রকার অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত না। তাছাড়া তার ভগ্নিপতির বিরুদ্ধে সিঙ্গাপুরে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তাও সঠিক নয়। সেখানে দেখা যায় তাপস কুমার বিদেশে গিয়ে মালিকের সাথে বিবাদে জড়িয়ে মালিকের নামে সিঙ্গাপুর শ্রম আদালতে একটি মামলা করে। মামলায় হেরে গিয়ে দেশে ফিরে আসে। এখন সে উদোর পিন্ডি বুদোর ঘাঁড়ে চাপাতে তৎপর হয়ে উঠেছে। সে মহাদেব কুমারকে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। এখন কিছু সহযোগী দিয়েও এই শিক্ষককে হয়রানী করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী প্রশাসনসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

SHARE