ব্রিটেনের প্রথম হিজাবী মডেল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ লন্ডনে জন্ম নেয়া শাহিরা ইউসুফ প্রথম ব্রিটিশ মডেল যিনি মাথায় হিজাব পরেই বিভিন্ন ক্যাটওয়াক এবং শো গুলোতে অংশ নেন। ২০ বছর বয়সী শাহিরা রানওয়েতে নতুন। কিন্তু ফ্যাশন দুনিয়ার পরবর্তী তারকা হতে যাচ্ছেন তিনি। এখনই তিনি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। খবর বিবিসি।
শাহিরা বলেন, আমার বয়স যখন ১৭ তখনই আমাকে মডেলিংয়ের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি রাজি হইনি। কারণ বয়স যখন কম থাকবে, তখন বাস্তব জ্ঞানও কম থাকবে। তাই বড়ো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করাটাকেই আমি ভালো মনে করেছি। না হলে এই শিল্প আপনাকে গিলে খেতে পারত।
মৃদুভাষী শাহিরা ইউসুফ জানালেন, মডেলিং পেশায় আসার সময় তিনি নিজে কিছু সীমানা বেঁধে দিয়েছেন। এই সীমানা তিনি কাউকে অতিক্রম করতে দেবেন না। তার টেস্ট শট-এর ছবির সবগুলিতে তাকে সর্বাঙ্গ ঢেকে রাখা পোশাকে দেখা গেছে। শাহিরার জন্ম লন্ডনে হলেও তার মা-বাবা এসেছেন সোমালিয়া থেকে।
শাহিরা বলেন, আমি যে একজন মুসলমান এবং আমি হিজাব পরি, এটা নিয়ে আমার নিজের কোন মাথাব্যথা নেই। কিন্তু তাই বলে কেউ যেন আমাকে অপাত্র বলে বিবেচনা না করেন। আমি চাই ফ্যাশন দুনিয়ার বাইরে সমাজ যেভাবে বদলে যাচ্ছে, ফ্যাশন দুনিয়ার ভেতরের সংস্কৃতিতেও একদিন পরিবর্তন আসবে।
শাহিরা ইউসুফ বিশ্বাস করেন যে একদিন তার মতো আরও মুসলমান মেয়ে ফ্যাশন মডেলিংয়ে আসবেন। শাহিরার এজেন্ট বিলি মেহমেট তার কোম্পানি স্টর্ম-এর হয়ে আরও ৫০ জন নবাগত ফ্যাশন মডেলের দেখাশোনা করেন।
তিনি জানান, ফ্যাশন দুনিয়াও এখন বদলে যাচ্ছে। তাদের ক্লায়েন্টরা এখন শুধু রূপসীদের চান না, তারা চান রূপের পাশাপাশি থাকবে মেধা। তারা চান মডেলরা হবে শিল্পী কিংবা সমাজকর্মী। শাহিরার কারণে আরও হিজাবধারী মুসলমান মেয়ে চিন্তা করবে যে আমরা কেন ফ্যাশন মডেল হতে পারবো না? হিজাব পরেই কেন তারা ক্যাটওয়াকে হাঁটতে পারবেন না?

SHARE