প্রশাসনের নির্দেশ মানছে না সেই হিরা ব্রিক্স অবৈধভাবে তৈরি ইট গায়ে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের ঝিকারগাছায় অবৈধ ইটভাটায় মনির হোসেন (৩০) নামে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার সকালে শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি উপজেলার যাদবপুর বেড়ারপানি গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে ও চন্ডিপুর হিরা ব্রিক্সের শ্রমিক। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন ও অন্যান্য লেবারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল হকের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।
মৃতের স্বজন ও স্থানীয়রা জানিয়েছেন, গত ৮ মার্চ সকাল সাড়ে ৯টার দিকে হিরা ব্রিক্সের কাজ করতে যান মনির। সেখানে তিনি একটি ট্রাকে ইট লোড দেওয়ার সময় ট্রাক থেকে ইট তার শরীরের উপরে পড়লে তিনি মারাত্মক আহত হন। এ সময় অন্যান্য শ্রমিকরা তাকে উদ্ধার করে শহরের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে (কুইন্সে) ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সাড়ে ১১টার দিকে ডা. এহসানুল হক তাকে মৃত্যু ঘোষণা করেন।
এদিকে মৃত্যু কথা শুনে ব্রিক্সের মালিক রফিকুল ইসলাম কৌশলে লাশ ময়নাতদন্ত না করিয়ে একটি কুচক্রি মহলের সহযোগিতায় লাশ ক্লিনিক থেকে রিলিজ করিয়ে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করেন। বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে স্থানীয় লোকজন ও অন্যান্য শ্রমিকরা হিরা ব্রিক্স বন্ধ ও মৃতের ক্ষপুরণ চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুল হকের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন।
উল্লেখ্য যে, বেআইনিভাবে ইটভাটা পরিচালনার অভিযোগে গত ২৭ ফেব্রুয়ারি যশোরের জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত হিরা ব্রিক্সের কার্যক্রম বন্ধ করে দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ অমান্য করে ব্রিক্সের মালিক রফিকুল ইসলাম চলতি মাসের ৬ তারিখ থেকে পুনরায় ব্রিক্সটি চালু করেন। বর্তমানে শ্রমিক মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রিক্স এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

SHARE