শি জিনপিংয়ের অনির্দিষ্টকাল প্রেসিডেন্ট থাকার পথ খুলল

সমাজের কথা ডেস্ক॥ সংবিধান সংশোধন করে সর্বোচ্চ দুই মেয়াদ প্রেসিডেন্ট থাকার বিধান তুলে দিয়েছে চীনের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেস; ফলে অনির্দিষ্টকাল চীনের নেতৃত্বে থাকার সুযোগ তৈরি হল শি জিনপিংয়ের সামনে।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, আগের আইন বহাল থাকলে সর্বোচ্চ ২০২৩ সাল পর্যন্ত প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে পারতেন শি। কিন্তু প্রেসিডেন্টের মেয়াদের বিধান তুলে নেওয়ায় আর কোনো আইনি বাধা থাকল না।
রোববার চীনের গ্রেট হল অব দা পিপলস পার্লামেন্টের বার্ষিক অধিবেশনে সংবিধান সংশোধনের প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটি হয়।
পিপলস কংগ্রেসের প্রায় তিন হাজার প্রতিনিধির মধ্যে দুই হাজার ৯৬৪ জন প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেন। দুই জন প্রস্তাবের বিপক্ষে ভোট দেন এবং তিনজন ভোট দানে বিরত থাকেন।
রয়টার্স লিখেছে, গত মাসে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি সংবিধান সংশোধনের ওই প্রস্তাব আনার পর তা যে পাস হবে, তা নিয়ে কোনো সন্দেহই ছিল না।
১৯৯০ এর দশকে চীন প্রেসিডেন্ট পদে থাকার সীমা বেঁধে দেয়। সংবিধান অনুযায়ী দেশটির কংগ্রেস চীনের সর্বোচ্চ আইন পরিষদ।
ইতিহাসবিদ ও রাজনীতির বিশ্লেষক ঝ্যাং লিফানের মতে, শিকে ক্ষমতায় রাখতে সংবিধান সংশোধনের এই উদ্যোগ আগেই অনুমান করা যাচ্ছিল। কিন্তু কত বছর তাকে ক্ষমতায় রাখার কথা চিন্তা করা হচ্ছে- তা নিয়ে পূর্বাভাস দেওয়া কঠিন।

SHARE