যশোরে নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল আউয়ালের যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে ৩১তম জেলা প্রশাসক হিসেবে আব্দুল আউয়াল দায়িত্ব নিয়েছেন। গতকাল রোববার ছিলো তার প্রথম কর্মদিবস। কর্মক্ষেত্রে যোগ দিয়ে তিনি সরকারি কর্মকর্তাদের সাথে পরিচিত হন। এদিন সরকারি কর্মকর্তারা ছাড়াও সামাজিক ব্যক্তিত্বদের সাথে তিনি শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন।
গত ২৫ ফেব্রুয়ারি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে যশোরসহ সারা দেশের ২২ জেলায় নতুন ডিসি নিযুক্ত করা হয়। এর মধ্যে ১৯ জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক (ডিসি) নিয়োগ ও ৩ ডিসিকে বদলি করা হয়। এতে আব্দুল আওয়ালকে যশোরের জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়। এর আগে তিনি ঠাকুরগাঁওয়ের জেলা প্রশাসক ছিলেন।
রোববার সকালে জেলা প্রশাসকের বাংলোতে বিদায়ী জেলা প্রশাসক (যুগ্ম সচিব) আশরাফ উদ্দিন আনুষ্ঠানিকভাবে নবাগত জেলা প্রশাসকের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। এসময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) হুসেইন শওকত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) দেবপ্রসাদ পাল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) রেজায়ে রাব্বী, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট একেএম মামুন উজ্জামানসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে নবাগত জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল কালেক্টরেট ভবনে আসলে কর্মকর্তাদের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে সকল পর্যায়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে পরিচিতি সভায় মিলিত হন তিনি।
এদিকে, সাংস্কৃতিক সংগঠন চাঁদের হাট যশোর জেলা শাখা নতুন ডিসিকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছে। তিনি নাটোরের নবাব সিরাজউদ্দৌলা কলেজ শাখা চাঁদের হাটের শিল্প বিভাগের প্রথম সদস্য (আহ্বায়ক কমিটির শিল্প বিষয়ক সদস্য, বর্তমান কাঠামোর শিল্প সম্পাদক) ছিলেন। তিনি সেসময় কলেজ শাখার স্মরণিকা ‘রঙধনু’র প্রচ্ছদ শিল্পী এবং ছবি আঁকার স্কুল ‘রঙতুলি’ পরিচালক ছিলেন। চাঁদের হাটের ফুলেল শুভেচ্ছা গ্রহণকালে জেলা প্রশাসক আব্দুল আউয়াল সংগঠনের প্রতিনিধিদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘আমি চাঁদের হাটের সদস্য ছিলাম না, এখনও আছি। আমার অন্তর জুড়ে শৈশব ও কৈশোরের ভালোলাগার সবটুকুতেই জড়িয়ে রয়েছে চাঁদের হাট। তিনি শিগগিরই চাঁদের হাট পরিদর্শনের আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এ সময় চাঁদের হাট নেতৃবৃন্দের মধ্যে চাঁদের হাট যশোরের প্রতিষ্ঠাতা ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল, সহ-সভাপতি কবীর উদ্দীন, সাধারণ সম্পাদক এসএম আরিফ, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক মুসলিমা আক্তার মৌ ও সদস্য ফারজানা সাথী উপস্থিত ছিলেন।

SHARE