রোহিতের সেঞ্চুরিতে সিরিজ ভারতের

সমাজের কথা ডেস্ক॥ আগের চার ম্যাচে অনুজ্জ্বল রোহিত শর্মা জ্বলে উঠলেন দলের প্রয়োজনের সময়। দারুণ সেঞ্চুরিতে দলকে এনে দিলেন লড়াইয়ের পুঁজি। এক ম্যাচ পরেই চেনা ছন্দে দেখা গেল ভারতের রিস্ট স্পিনারদের। তাদের নৈপুণ্যে প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে সিরিজ জিতল ভারত।

পঞ্চম ম্যাচে ৭৩ রানে জিতেছে বিরাট কোহলির দল। ২৭৪ রান তাড়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা থামে ২০১ রানে। এই জয়ে ছয় ম্যাচের সিরিজে ৪-১ ব্যাবধানে এগিয়ে অতিথিরা।

পোর্ট এলিজাবেথের সেন্ট জর্জেস পার্কে টস হেরে ৪৮ রানে শিখর ধাওয়ানকে হারায় ভারত। দ্বিতীয় উইকেটে কোহলির সঙ্গে ১০৫ রানের জুটি উপহার দেন রোহিত। অধিনায়কের পর অজিঙ্কা রাহানেও ফিরে যান রান আউট হয়ে।

শ্রেয়ার আয়ারের সঙ্গে ৬০ রানের জুটি গড়েন রোহিত। ২ রানের মধ্যে এই দুই ব্যাটসম্যানের সঙ্গে হার্দিক পান্ডিয়াকে ফিরিয়ে অতিথিদের চাপে ফেলেন লুঙ্গি নগিডি। পরে ফিরিয়ে দেন মহেন্দ্র সিং ধোনিকেও।

ম্যাচ সেরা রোহিত ফিরেন ১২৬ বলে ১১টি চার ও চারটি ছক্কায় ১১৫ রান করে। ওয়ানডেতে তার ১৭তম সেঞ্চুরি। শেষের দিকে ভুবনেশ্বর কুমারের ব্যাটে দক্ষিণ আফ্রিকাকে পৌনে তিনশ রানের লক্ষ্য দেয় ভারত।
৫১ রানে ৪ উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা বোলার নগিডি।

রান তাড়ায় এইডেন মারক্রামের সঙ্গে ৫২ রানের জুটিতে শুরুটা ভালো হয় স্বাগতিকদের। জাসপ্রিত বুমরাহ দক্ষিণ আফ্রিকার ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মারক্রামকে ফিরিয়ে ভাঙেন জুটি। পান্ডিয়া দ্রুত বিদায় করেন জেপি দুমিনি ও এবি ডি ভিলিয়ার্সকে।

ডেভিড মিলারের সঙ্গে ৬২ রানের জুটিতে দলকে ম্যাচে ফেরান আমলা। বিপজ্জনক মিলারকে বোল্ড করে জমে উঠা জুটি ভাঙেন লেগ স্পিনার যুজবেন্দ্র চেহেল। আমলা ছিলেন বলে টিকে ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার আশা।

৭১ রান করা আমলাকে সরাসরি থ্রোয়ে রান আউট করে ম্যাচ ভারতের মুঠোয় নিয়ে আসেন পান্ডিয়া। হাইনরিখ ক্লাসেনের ব্যাটে এরপর পরাজয়ের ব্যবধান কিছুটা কমায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দলটি শেষ ৪ উইকেট হারায় মাত্র ৫ রানে। স্বাগতিকদের শেষ ৫ ব্যাটসম্যানের কেউ দুই অঙ্কে যেতে পারেননি।
৫৭ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ভারতের সেরা বোলার চায়নাম্যান কুলদীপ যাদব। চেহেল ২ উইকেট নেন ৪৩ রানে। আগামী শুক্রবার সেঞ্চুরিয়নে হবে ষষ্ঠ ও শেষ ওয়ানডে।