মণিরামপুরে আশ্রমে হামলার ঘটনায় মামলা হলেও আসামি আটক হয়নি

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের মণিরামপুর উপজেলার তপবন আশ্রমে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে মামলা হলেও আসামি আটক হয়নি। শুধুমাত্র আশ্রমে নিরাপত্তা জোরদার করলেও তদন্তকারী কর্মকর্তা হাসপাতালে আহত ও ঘটনাস্থলে গিয়ে এখন পর্যন্ত তদন্ত শুরু করেননি বলে ভুক্তবোগীরা জানিয়েছেন।
উল্লেখ্য, গত চার ফেব্রুয়ারি রাতে বিলের সেচ দেওয়া নিয়ে এলাকার দু’গ্রপের গোলযোগকে কেন্দ্র করে একটি পক্ষ উপজেলার বাহাদুরপুর তপবন আশ্রমে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ সময় অধ্যক্ষ মহারাজ প্রতিবাদ করতে গেলে সন্ত্রসীরা তাকেও মারপিট করে এ শিষ্যরা এগিয়ে এলে তারাও হামলার শিকার হন। পরে গভীর রাতে আশ্রমের অন্যান্য শিষ্যরা আহতদের উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।
এদিকে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এসএম খয়রাত হোসেন জানান, খবর পেয়ে হাসপাতালে আহতদের খোঁজ খবর নেওয়াসহ তাদের উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি নিজেই ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। তিনি আরও জানান, এলাকায় বিল ও কিছু জমিতে আশ্রম কর্তৃপক্ষ চাষাবাদ করেন। যাদের জমি তাদেরকে খরচ দেওয়া হয়। কিন্তু ৪ ফেব্রুয়ারি সেচ পাম্প বসায় মিলন। কিন্তু কে বা কারা সেই পাম্প বন্ধ করে দেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে অজ্ঞাতনাম সন্ত্রাসীরা আশ্রমে হামলা চালিয়ে ভাংচুার ও তাপসীদের আহত করে। ঘটনার দু’দিন পরে পুলিশ তদারকি শুরু হলেও আসামিদের গ্রেপ্তার হয়নি।
কথাগুলো বলে অশ্বত্থ গাছটার নিচে বসে একটা সিগারেট ধরালো। সে মদে অভ্যস্ত নয়। অবশ্য ওরা কেউ-ই নিয়মিত মত খায় না। যে দিন কোন শব দাহ করতে শ্মশানে যায় সেদিন ঠুকরের প্রসাদ খাওয়ার মত একটু চেখে দেখে।

SHARE