ভ্যাটিকানে পোপের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইতালি সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভ্যাটিকানে বৈঠক করেছেন পোপ ফ্রান্সিসের সঙ্গে। জাতিসংঘের কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফএডি) গভর্নিং কাউন্সিলের সভায় অংশগ্রহণ এবং ভ্যাটিকান সফরে রোববার ইতালি পৌঁছেন শেখ হাসিনা। আইএফএডির প্রেসিডেন্ট গিলবার্ট এফ হংবো ও পোপ ফ্রান্সিসের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রীর চার দিনের এই সরকারি সফর হচ্ছে। শেখ হাসিনা সোমবার সকালে ভ্যাটিক্যান সিটিতে পৌঁছালে শেখ হাসিনাকে ‘স্ট্যাটিক গার্ড অব অনার’ দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন, এরপর পোপ ফ্রান্সিস এবং সেক্রেটারি অব স্টেট অব ভ্যাটিক্যান সিটি কার্ডিনাল পিয়েত্রো পারোলিনের সঙ্গে বৈঠক করেন শেখ হাসিনা।
শেখ হাসিনা পোপকে বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের উপর একটি চিত্রকর্ম উপহার দেন। পোপও শেখ হাসিনাকে একটি ক্রেস্ট উপহার দেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গীদেরও স্যুভেনির উপহার দেন পোপ। বৈঠকের পর ভ্যাটিকানের সিসটাইন চ্যাপেল ও সেইন্ট পিটার্স ব্যাসিলিকা পরিদর্শন করেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। সিসটাইন চ্যাপেল ক্যাথলিক ধর্মগুরু পোপের সরকারি বাসভবন। আর সেইন্ট পিটার্স ব্যাসিলিকা ইতালীয় রেনেসাঁ গির্জা; যা রেনেসেঁর সময়ের স্থাপত্যকলার একটি অনন্য নিদর্শন। এটি পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গির্জা। ভ্যাটিকান সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছাড়াও অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী ছিলেন।
শেখ হাসিনার আমন্ত্রণে পোপ ফ্রান্সিস গত ৩১ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর বাংলাদেশ সফর করেন।
প্রধানমন্ত্রীর সফরের আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাহমুদ আলী সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, “মহামহিম পোপের বাংলাদেশ সফরের পরপরই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভ্যাটিকান সফর দুদেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করবে।ৃ খ্রিস্টান দেশসমূহে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বলতর হবে এবং সেসব দেশে বসবাসরত বাংলাদেশিদের জন্য আরও অনুকূল পরিবেশ তৈরি হবে।”
শেখ হাসিনা মঙ্গলবার সকালে রোমে আইএফএডির সদর দপ্তরে গভর্নিং কাউন্সিলের ৪১তম অধিবেশনে যোগ দেবেন। উদ্বোধনী অধিবেশনে তিনি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রোমে প্রবাসী বাংলাদেশিদের এক সংবর্ধনা সভায় যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। সফর শেষে ১৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় তার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

SHARE