শালিখায় সাব-রেজিস্ট্রারের বদলির দাবিতে দলিল লেখক সমিতির কলম বিরতি শুরু

শালিখা (মাগুরা) প্রতিনিধি ॥ মাগুরার শালিখা উপজেলার সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসার ইকবাল হুসাইনের শাস্তি ও বদলীর দাবিতে দলিল লেখক সমিতি অনির্দিষ্টকালের জন্য কলম বিরতি শুরু করেছে। মঙ্গলবার সকাল হতে এই কর্মবিরতি শুরু হয়েছে। এরফলে ক্রেতা বিক্রেতাদের দুর্ভোগ শুরু হয়েছে।
সমিতির সাধারণ সম্পাদক মতিয়ার বিশ্বাস জানান, সাব-রেজিস্ট্রি অফিসার গত ২৪ অক্টোবর এখানে যোগদান করার পর থেকেই বিভিন্ন ধরণের অনিয়ম দুর্নীতি ও দলিল লেখকদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচারণ করে চলেছেন। তিনি আরো বলেন, গত সোমবার সিনিয়র দলিল লেখক ইমান আলী মোল্যা তাঁর লিখিত দলিল সাবরেজিষ্ট্রারের কাছে দাখিল করেন। সাবরেজিস্ট্রার দলিলটি দেখার এক পর্যায়ে তাঁর কাছে অর্থ দাবি করেন। তিনি অর্থ না দিতে চাইলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে কক্ষ থেকে বের করে দেন। এছাড়াও তিনি গত কয়েক দিন আগে উপজেলার গোপালগ্রামের আব্দুল হামিদ বিশ্বাস, ফরিদ বিশ্বাস, লিটন বিশ্বাস নামের জমি বিক্রেতার সম্পাদনকৃত দলিল লেখায় সামান্য ভূল হওয়ায় মোটা অংকের টাকা দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তিনি লিখিত স্ট্যাম টেনে ছিড়ে ফেলেন। এ ব্যাপারে সিনিয়র দলিল লেখক ইমান আলী মোল্যা জানান, আমি ৩৮ বছর এই এই পেশায় কর্মরত আছি। কিন্তু এভাবে অপমানিত কখনও হইনি। তিনি কাঁন্না জড়িত কন্ঠে আরো বলেন, আমি যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানাই। এ ব্যাপারে সাবরেজিস্ট্রার ইকবাল হুসাইনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ করা হচ্ছে তার কোনটাই সত্য নয়। তবে দলিল ছিড়ে ফেলার বিষয়টি তিনি কথা স্বীকার করেছেন কিন্তু কেন তা কৌশলে এড়িয়ে যান এই কর্মকর্তা।
এদিকে দলিল লেখক সমিতির নেতৃবৃন্দ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন দুর্নীতিবাজ এই কর্মকর্তাকে অপসারণ না করা পর্যন্ত কর্মবিরতি অব্যাহত থাকবে।

SHARE