শালিখায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার সময় ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেটসহ গ্রেফতার ৪

শালিখা (মাগুরা) প্রতিনিধি ॥ মাগুরার শালিখায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করার সময় এক ভূয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও ৩ মহিলা মানবাধিকার কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন, শালিখা উপজেলার বাকল বাড়ীয়া গ্রামের শরৎ চন্দ্র রায়ের কন্যা কল্পনা রায় (৪০), মাগুরা পুরাতন বাজার এলাকার প্রিন্স হোসেনের স্ত্রী রিমি ইয়াসমিন (৩৫), মাগুরার নিজ নান্দুলিয়া গ্রামের কুদ্দুস আলীর স্ত্রী হাসিনা বেগম (৪০) ও মাগুরার মালন্দ গ্রামের সুকান্ত কুমারের ছেলে উত্তম কুমার। তাদের গাড়ীতে পাক্ষিক উত্তরণ ও এশিয়া ছিন্নমূল মানবাধিকার ফাউন্ডেশন নামে দুটি মানবাধিকার সংস্থার ব্যানার ঝুলানো ছিল। গ্লাসে সাটানো ছিল সংস্থা দুটির স্টিকারও। তাদের একজন ম্যাজিস্ট্রেট ও ৩ জন মানবাধিকার কর্মী পরিচয় দেন।
সুত্রমতে, মঙ্গলবার তারা উপজেলার সিংড়া বাজারের সরকার ফার্মেসীতে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার নামে ফার্মেসী মালিককে ভয়ভীতি দেখিয়ে মোটা অংকের টাকা দাবি করে। তাদের ব্যবহৃত গাড়ী নং- ঢাকা মেট্রে চ-৫১-৩৮৯৭। তাদের আচার-আচারণে ফার্মেসী মালিক শেখর সরকারের সন্দেহ হলে তিনি গোপনে পুলিশে খবর দেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহি অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) শেখ সামসুল আরেফীন ও শালিখা থানা অফিসার ইনচার্জ রবিউল হোসেনের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের পাকড়াও করেন। এ ব্যাপারে শালিখা থানায় একটি প্রতারণার মামলা হয়েছে। এদিকে ধৃতরা পুলিশকে জানায় তারা উপজেলার শরুশুনা গ্রামের হোসেন আলীর কথায় অভিযানে এসেছিলেন। তবে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ হোসেন আলীকে আটক করেনি। তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে প্রতারণার চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

SHARE