জীবননগরে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা

জীবননগর (চুয়াডাঙ্গা) প্রতিনিধি
চুয়াডাঙ্গার জীবননগরে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে; যাকে কৌশলে সীমান্তে ডেকে নিয়ে ভারতীয় মাদক বিক্রেতারা হত্যা করেছে বলে দাবি পরিবারের।

 

রোববার বিকালে উপজেলার রাজাপুর সীমান্তের বিপরীতে ভারতের অভ্যন্তরের একটি কলাবাগানে এ ঘটনা ঘটে তার পরিবার জানিয়েছে।

নিহত কবির হোসেন (৪২) উথলী ইউনিয়নের উপজেলার সীমান্ত এলাকা রাজাপুর গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে।

কবির বিজিবির সোর্স ছিল দাবি করে তার ছোট ভাই আব্দুল সবুর বলেন, ভাই বিজিবির সোর্স হিসেবে কাজ করায় ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ীরা তার উপর ক্ষিপ্ত ছিল।

“এ কারণে কৌশলে তাকে ভারতীয় সীমান্তে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে।”

তবে ঝিনাইদহ ৫৮ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল জিল্লুর রহমান বলেন, লাশ পাওয়া গেছে জীবননগর হাসপাতালে। তিনি কখন কিভাবে কোথায় মারা গেছেন তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ওই ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য আশরাফ আলী বলেন, “কবির মাদক চোরাচালানি।পাশাপাশি সে বিজিবির সোর্স হিসেবেও কাজ করে।

“রোববার বেলা ৩টার দিকে মাদক ব্যবসার নাম করে ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ীরা কৌশলে তাকে ভারতের অভ্যন্তরে ডেকে নিয়ে যায়। পরে সেখানে একটি কলাবাগানে তাকে কুপিয়ে ও জবাই করে জখম করে ফেলে রাখে।”

খবর পেয়ে স্বজনরা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হেলেনা আক্তার নিপা মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে জীবননগর ওসি এনামুল হক বলেন, হত্যাকান্ডের ঘটনা শুনেছেন।