জাপানের বিপক্ষে নিজেদের খেলাটা খেলতে চায় বাংলাদেশ

সমাজের কথা ডেস্ক॥ উত্তর কোরিয়া ম্যাচে তালগোল পাকিয়ে বিশাল ব্যবধানে হারের পর সামনে আরেক শক্তিশালী প্রতিপক্ষ জাপান। এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় ম্যাচে এবার শুরুতেই ভেঙে পড়তে চায়না বাংলাদেশ মেয়েরা। শিষ্যরা নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারলেই সন্তুষ্ট কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন।

 

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৪টায় ‘বি’ গ্রুপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচটি মেয়েরা খেলবে চোনবুরির ইনিস্টিটিউট অব ফিজিক্যাল এডুকেশন ক্যাম্পাস স্টেডিয়ামে। বুধবার সেখানেই প্রস্তুতি সেরেছে দল।

এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়নশিপের বর্তমান রানার্সআপ জাপান ২০১৪ সালের অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে সেরা ও ২০১৬ সালে রানার্সআপ হয়। থাইল্যান্ডের এই টুর্নামেন্ট তারা যাত্রা শুরু করেছে গ্রুপের আরেক শক্তিশালী দল অস্ট্রেলিয়াকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে। অন্যদিকে বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে উত্তর কোরিয়ার কাছে উড়ে গেছে ৯-০ ব্যবধানে। কোচের আশা, প্রথম ম্যাচে ভয় কাটিয়ে কৃষ্ণা-মৌসুমীরা নিজেদের স্বাভাবিক খেলাটা মেলে ধরবে।

“গত ম্যাচেও আমরা চেয়েছিলাম মেয়েরা স্বাভাবিক খেলাটা খেলবে, কিন্তু পারেনি। বাস্তবতা হচ্ছে আমরা কাদের বিপক্ষে খেলছি। আমরা সবাই শঙ্কিতও ছিলাম যে, উত্তর কোরিয়ার যে শক্তি, তাতে আমাদের মেয়েরা নিজেদের আত্মবিশ্বাস ধরে রাখতে পারবে কিনা। দেখলাম যে তারা পারেনি। কারণ আমরা কখনই এরকম দলের বিপক্ষে খেলিনি। প্রথম ম্যাচে তারা আবেগ ধরে রাখতে পারেনি। এ কারণে তারা স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারেনি।”
“আমাদের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কৃষ্ণা, স্বপ্না, নার্গিস স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারেনি। আমরা চাইছি, তারা যেন তাদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারে। জাপান বিশ্বসেরা, কিন্তু মেয়েদের বলেছি, তোমরা তোমাদের খেলাটা খেলো। মাঝে দুই দিন সময় পেয়েছি। এই দুই দিন মেয়েদের অনুপ্রাণিত করেছি তারা যেন তাদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে পারে এবং এটাই আমাদের লক্ষ্য।”

SHARE