স্বেচ্ছাশ্রমে আশাশুনির হরিশখালী বাঁধ সংস্কার

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ॥ আশাশুনিতে এলাকার মানুষের স্বেচ্ছাশ্রমে হরিশখালী ভয়ারহ ভেড়ীবাঁধটি প্রাথমিকভাবে আটকানো সম্ভব হয়েছে। তবে রাতের জোয়ারে কি হবে তা নিয়ে জনমনে শঙ্কা রয়েছে।
জানাগেছে গতকাল ১০নং প্রতাপনগর ইউনিয়নবাসি দলমত নির্বিশেষে গ্রেফতারের বোঝা মাথায় নিয়ে জানমাল রক্ষায় বেড়িবাঁধ উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুষমা সুলতানা বাঁধ সংস্কার কাজের সমাপ্তি ঘোষণা করেন। এ সময় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন, ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বুলি, আইয়ুব আলী, মোকছেদ মেম্বর ও তালতলা বাজার কমিটির সভাপতি আলহাজ কামাল হোসেনসহ এলাকার সর্বস্তরের মানুষ উপস্থিত ছিলেন। ইউপি চেয়ারম্যান শেখ জাকির হোসেন জানান, জেলা প্রশাসক মহোদয় আমাকে সরকারি অনুদানের আশ্বাস দিয়েছেন। আমার নিজস্ব তহবিল থেকে বাঁধের জন্য ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয় করেছি। তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কোন কর্মকর্তা অনুদান বা ঘটনাস্থল দেখতে আসেনি। আমার ইউনিয়নে লক্ষ লক্ষ টাকার আমন ধান, মৎস্য ঘের, কাচা, পাকা ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট ব্যপক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সবমিলে কোটি কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি জানান। পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৭/২ নং পোল্ডারের কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগের জন্য ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে কল করা হলে বন্ধ পাওয়া যায়। পানি উন্নয়ন বোর্ডের দায়িত্বহীন কর্মকান্ডে জনমনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।

SHARE