যশোরে ব্যবসায়ী সাজিদ হত্যাকান্ড তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর প্রেমিক ও তার ভাই আটকের গুঞ্জন, পুলিশের অস্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরে ব্যবসায়ী সাজেদুর রহমান সাজিদ হত্যায় তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীর প্রেমিক মানিক ও তার ভাই সাকিলকে তিনদিন আগে পুলিশ আটক করেছে বলে গুঞ্জন উঠেছে। কিন্তু পুলিশের পক্ষ থেকে তাদের আটকের কথা অস্বীকার করায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন স্বজনরা।
পুলিশ সূত্র মতে, গত ৮ সেপ্টেম্বর রাতে যশোর শহরের বড় বাজারের ফেন্সি মার্কেটের ব্যবসায়ী সাজেদুর রহমান সাজিদের লাশ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলীর বাংলোর সামনে উদ্ধার করা হয়। এঘটনায় ১০ সেপ্টেম্বর নিহতের পিতা ঘোপের জালাল উদ্দিন বাদী হয়ে পুত্রবধূ সাদিয়া সুলতানা শাম্মী, তার প্রেমিকা মানিক, শাম্মীর পিতা খোলাডাঙ্গা পীর বাড়ির মুন্তাজ আলী ও মা তাছলিমা বেগমের বিরুদ্ধে মামলা করে।
মামলায় নিহতের পিতা উল্লেখ করেন, তার পুত্রবধূ শাম্মীর সাথে মানিকের পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি জানতে পেরে সাজিদ বাধা দেয়ায় তাকে খুনের পরিকল্পনা করা হয়।
মানিকের মা রুবি বেগম কোতোয়ালি মডেল থানায় এসে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, মানিক ধর্মতলা বাজারে মুদি দোকানের ব্যবসা করে। গত রোববার রাত ১০টার দিকে সাদা পোষাকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে দোকান থেকে মানিক ও তার ভাই সাকিল এবং একই এলাকার সোহেলকে আটক করে নিয়ে যায়। পরে সোহেলকে ছেড়ে দিলেও মানিক এবং সাকিলকে এখনো ছাড়েনি বা তাদের কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। স্থানীয় একটি সূত্র জানিয়েছে, একটি আইন প্রয়োগকারী সংস্থা প্রেমিক মানিককে আটক করেছে বলে গতকাল দিনভর শহরে গুঞ্জন চলেছে। তাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে এমনটিও শোনা যাচ্ছে।
অপরদিকে, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি থানা পুলিশের পরিদর্শক অপারেশন শামসুদ্দোহা জানিয়েছেন, মামলা হওয়ার পর থেকে আসামি নিহতের স্ত্রী শাম্মী, তার পিতা মুন্তাজ, মাতা তাছলিমা বেগম এবং প্রেমিক মানিক গা-ঢাকা দিয়েছে। তাদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে।

 

 

SHARE