শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্বাস্থ্য খাতে উন্নয়ন হয়েছে কমেছে শিশু মৃত্যুহার

বাগেরহাট প্রতিনিধি ॥ জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। দেশে মাতৃত্ব কালিন মৃত্যু ও শিশু মৃত্যুহার কমেছে। মানুষের গড় আয়ুও বেড়েছে। বিগত দিনে গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো মাদক সেবীদের আড্ডাস্থল ও গো খামারে পরিণত হয়েছিলো। আজ সেই কমিউনিটি ক্লিনিকে সরকারিভাবে ৩২ প্রকার ফ্রি ঔষধ দেয়া হচ্ছে। ঘরে বসে গ্রামের মায়েরা সরকারিভাবে স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছেন। এটাই শেখ হাসিনা সরকারের সফলতা। তিনি আরো বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও বাংলাদেশের স্বাস্থ্য সেবার অগ্রগতির প্রশংসা করছে। বাগেরহাটে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের নির্মান কাজ শেষ হয়েছে,যা অচিরেই চালু হবে।এছাড়া বাগেরহাট জেলায় দ্রুত মেডিকেল নাসিং মেডিক্যাল কলেজ নির্মাণের কাজ শুরু হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।
বুধবার সকালে বাগেরহাট সদর হাসপাতালের সম্মেলন কক্ষে জেলা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্জ এ্যাড: মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি তার সমাপনি বক্তৃতায় একথা বলেন। সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা: অরুন চন্দ্র মন্ডল, বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (এডিএম) মোমিনুর রহমান, গণপুর্ত বিভাগের অতিরিক্ত প্রকৌশলী সমিরন মিস্ত্রি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বিকাশ কুমার দাস, ডা: মোশারেফ হোসেন, ডা: শাহানা রাজ্জাক, জেলা স্বাস্থ্য কমিটির সদস্য অধ্যাপক মোজাফ্ফর হোসেন, বাবুল সরদার, জাহিদুল ইসলাম যাদু, আসমা আজাদ এবং ইজ্ঞিনিয়ার আতিকুর রহমান, সাইদুর রহমান, মহিতুর রহমান, রেনুকা সরকার প্রমুখ। সভায় বক্তারা হাসপাতালের ডাক্তার, জনবল সংকটসহ সেবার গুনগত মান নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন। সভাশেষে আলহাজ্জ এ্যাড: মীর শওকাত আলী বাদশা এমপি তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে হাসপাতালের ৪০ জন ক্লিনারদের (ওমেদার) পবিত্র ইদুল আজহা উপলক্ষে তাদের মাঝে অর্থ প্রদান করেন।

SHARE