সুন্দর পিচাইয়ের কিছু অজানা দিক

গুগলের প্রধান নির্বাহী সুন্দর পিচাই প্রতিবারই মিডিয়ার সামনে আসেন গুগল নিয়ে কথা বলতে বা নতুন কোনো পণ্য হাতে নিয়ে। প্রযুক্তি প্রেমীরা তার পদ বা বেতন সম্পর্কে ধারণা রাখলেও তার ব্যক্তিগত জীবনের কিছু তথ্য খানিকটা আড়ালেই রয়ে গেছে।
টেক জায়ান্ট গুগলের সর্ব কনিষ্ঠ এই নির্বাহী সম্পর্কে অজানা কয়েকটি তথ্য নিয়েই সাজানো হয়েছে আজকের ফিচার।

যেখানে বড় হয়েছেন

সুন্দর পিচাইয়ের পুরো নাম পিচাই সুন্দারারাজান। তার জন্ম ১৯৭২ সালে। তার ছোটবেলা কেটেছে চেন্নাইয়ে। তার বাবা পেশায় ছিলেন একজন ইলেক্ট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ার। মা ছিলেন শ্রুতিলেখক।

প্রখর স্মৃতি শক্তি

মুখস্থ করার বা পড়া মনে রাখার অসাধারণ ক্ষমতা থাকায় ছোটবেলাতেই তার নাম ডাক ছড়িয়ে পড়েছিলো। টেলিফোনে ডায়াল করা প্রতিটি নম্বর তার মনে থাকতো। এবিষয়টি তার বাবা মার নজর এড়ায়নি।

ক্রিকেট টিমের ক্যাপ্টেইন

হাই স্কুলে থাকতে পিচাই তার স্কুল ক্রিকেট টিমের ক্যাপ্টেইন ছিলেন। ২০১৫ সালে ভারতে গিয়েও তিনি ক্রিকেট খেলেন। তবে তিনি জানিয়েছেন, টি২০ খেলায় তার খুব একটা আগ্রহ নেই।

ব্যক্তিগত জীবন

আইআইটিতে পড়ার সময় তিনি তার সহপাঠী অঞ্জলিকে নিজের ভালোবাসার কথা জানান। এরপরে তার সঙ্গেই পিচাই ঘর বাঁধেন। অঞ্জলি পিচাই পেশায় একজন ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ার। বর্তমানে তারা এক ছেলে ও এক মেয়ের বাবা-মা।

ডাবল মাস্টার্স
প্রযুক্তি ভালবাসতেন বলেই তিনি ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশুনা করেন। তিনি ব্যাচেলর ডিগ্রি নেন ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (আইআইটি), কানপুর থেকে। এরপর এমএস করতে চলে যান আমেরিকায়। সেখানে স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় তিনি ম্যাটেরিয়াল সাইন্সের ওপরে এমএস ডিগ্রি নেন। পরে তিনি ইউনিভার্সিটি অব পেনসিলভানিয়া থেকে এমবিএ ডিগ্রি নেন।

প্রথম চাকরি
তিনি ক্যারিয়ার শুরু করেন অ্যাপলাইড ম্যাটেরিয়ালস নামে একটি প্রযুক্তি কোম্পানিতে। এরপরে তিনি চাকরি করেন ম্যাকেন্সি অ্যান্ড কোম্পানিতে।

গুগল অধ্যায়

সুন্দর পিচাই যেদিন গুগলে ইন্টারভিউ দিতে যান সেদিন গুগল জিমেইলের উন্মুক্ত করে। দিনটি ছিলো ২০০৪ সালের ৪ এপ্রিল। তাই পিচাই ধরেই নেন জিমেইল হয়তো গুগলের এপ্রিল ফুল উদযাপনের একটি অংশ।

চাকরি পাওয়ার পর তিনি গুগল ক্রোম ও ক্রোম ওএসের পোডাক্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বে ছিলেন। পরবর্তীতে তিনি গুগল ড্রাইভ, জিমেইল ও গুগল ম্যাপ শাখায়ও কাজ করেন।

অ্যান্ড্রয়েড
অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েডের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন অ্যান্ড রুবিন। তিনি সরে দাঁড়ালে তার জায়গা নেন পিচাই। ২০১৪ সালে ভারতে তার প্রকল্প অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান উন্মুক্ত করা হয়। সাশ্রয়ী মূল্যের অ্যান্ড্রয়েড ওয়ান তৈরির মূল পরিকল্পনা ছিলো পিচাইয়ের।

সেকেন্ড ইন কমান্ড

বিভিন্ন শাখায় কাজ করে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করার পর তিনি গুগলের সহ প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেইজের সেকেন্ড ইন কমান্ড হয়ে ওঠেন। সার্চ, ম্যাপস,গুগল প্লাস, ব্যবসা, বিজ্ঞাপন ও অবকাঠামো নিয়ে কাজ করে গুগলের প্রতিটি সেক্টর সম্পর্কেই তিনি অভিজ্ঞতা অর্জন করেন।

টিম লিডার

গুগলের সাবেক কি এক্সিকিউটিভ মারিসা মেয়ারের মতে,স্বল্পভাষী হলেও পিচাই টিম লিডার হিসেবে খুবই দক্ষ। প্রয়োজন বুঝেই তিনি কর্মীদের ওপরে চাপ প্রয়োগ করে থাকেন।

SHARE