ঈদেই প্রচার হবে ফেলুদা

অনেক জল ঘোলা হলো। থানায় জিডিও দায়ের করা হলো কলকাতার অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের নামে। সবকিছু পাশ কাটিয়ে নতুন খবর হলো অবশেষে ‘ফেলুদা’ প্রচার হতে যাচ্ছে আসছে কোরবানি ঈদে। সত্যজিৎ রায়ের বিখ্যাত এ গোয়েন্দা তার দলবলসহ ফেলুদাকে দেখা যাবে টেলিভিশন ও ওয়েব সংস্করণে।

বুধবার রাজধানীর অভিজাত একটি হোটেলে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানায় এর প্রযোজনা প্রতিষ্ঠাান ক্যান্ডি প্রোডাকশন ও টম ক্রিয়েশনস।

জানানো হয়, প্রতিষ্ঠানটি সত্যজিৎ রায়ের ছেলে সন্দীপ রায়ের কাছ থেকে ফেলুদার সব গল্প নিয়ে কাজ করার স্বত্ব পেয়েছেন। সিরিজটির প্রথম সিজনে চারটি গল্প দিয়ে শুরু হবে এবং পরবর্তীতে অন্যান্য গল্প নিয়ে কাজ হবে। বাংলাদেশের এ সিরিজটিতে ফেলুদা হচ্ছেন কলকাতার অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় ও তপসে চরিত্রে থাকছেন রিদ্ধি সেন।

‘ফেলুদা’ সিরিজের দুটি গল্প, ‘শেয়াল দেবতা রহস্য’, ’ঘুরঘুটিয়ার ঘটনা’ ঈদে চ্যানেল আইতে প্রচার হবে। টেলিভিশনে সম্প্রচারের পরপরই দর্শক এই সিরিজটি ওয়েব সিরিজ হিসেবে বাংলাদেশ থেকে দেখতে পাবেন ‘বায়স্কোপ’-এ এবং বাংলাদেশের বাইরে ‘আড্ডা টাইমস’-এ।

এ সংবাদ সম্মেলনে অতিথি ছিলেন সত্যজিৎ রায়ের পুত্র ও বিখ্যাত চিত্র পরিচালক সন্দীপ রায়, চ্যানেল আইয়ের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, টপ অব মাইন্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়াউদ্দিন আদিল, গ্রে এডভারটাইজিংয়ের ম্যানাজিং ডিরেক্টর সাইদ গউসুল আলম শাওন, গ্রামীণফোনের হেড অব মিডিয়া অপারেশনস ফারহা নাজ জামান, ‌‌‘আড্ডা টাইমস’র ম্যানাজিং ডিরেক্টর রাজিব মেহরা ও টপ অব মাইন্ড ও ক্যান্ডি প্রোডাকশনের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাবৃন্দ।

এদিকে এর আগে এ নাটককে ঘিরেই অভিযোগ করা হয়েছিল- পরমব্রত নিয়ম ভেঙে বাংলাদেশে অভিনয় করছেন। এমনকি বিদেশি শিল্পীদের অনুমতি ছাড়া বাংলাদেশে কাজ করার অভিযোগ এনে টিভিকেন্দ্রিক ১৩টি সংগঠনের জোট ‘এফটিপিও’-এর সদস্য সচিব নির্মাতা-অভিনেতা গাজী রাকায়েত বনানী থানায় জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করেছেন।

যেখানে পরমব্রতর ও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ক্যান্ডির নামও উল্লেখ করা হয়েছিল।
বিষয়টি নিয়ে ক্যান্ডি প্রোডাকশন জানিয়েছেন, গেল ১৩ আগস্ট তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে অনুমতি পেয়েছি। তাই পরমব্রতর বাংলাদেশে কাজ করতে আর বাধা নেই।

SHARE