নড়াইলে আ. লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম

সমাজের কথা ডেস্ক॥ নড়াইলে পূর্ব বিরোধের জেরে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার বেলা ১১ টার দিকে কালিয়া উপজেলার আমবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে কালিয়া থানার ওসি শেখ গনি মিয়া জানান।

আহত লুৎফর রহমান (৬০) কালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও চাচুড়ী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

লুৎফরের ছেলে এহসানুল হক বলেন, এলাকায় অধিপত্য বিস্তার নিয়ে গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের পর থেকে চাচুড়ী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলামের সমর্থকরা আমাদের হুমকি দিয়ে আসছিল।

“সকালে বাবা বাড়ির সামনে হাঁটাহাটি করার সময় সিরাজুলের সমর্থক একই গ্রামের এনামুল, সুজন, টুকু মোল্লাসহ কয়েজন তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে।”

এহসানুল জানান, প্রথমে তার বাবাকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে খুলনায় পাঠানো হয়।

নড়াইল সদর হাসপাতালের চিকিৎসক অলোক বিশ্বাস বলেন, “লুৎফরের দুই পা ও হাতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।”

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে সিরাজুল বলেন, “এ হামলার ঘটনার সঙ্গে আমি জড়িত নই।”
আমবাড়ি গ্রামের বিরোধের জেরে লুৎফর রহমানের ওপর হামলা হয়ে থাকতে পারে; তবে যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তারা কেউ তার লোক বলে দাবি করেন সিরাজুল।

ওসি শেখ গনি বলেন, “পূর্ব বিরোধের জেরেই এ হামলার ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।”

এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে; তবে থানায় কোন মামলা দায়ের হয়নি বলে জানান তিনি।

 

SHARE