‘কাতারের ওপর আরোপিত অবরোধ বেআইনি’

সমাজের কথা ডেস্ক॥ কাতারের সঙ্গে সৌদি নেতৃত্বাধীন চার দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কচ্ছেদের জেরে মধ্যপ্রাচ্য সংকট সহজেই মিটছে না। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের দফায় দফায় মধ্যপ্রাচ্য সফরেও সমাধানে পৌঁছাতে পারছে না দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়া দেশগুলো।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি ও ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা মধ্যপ্রাচ্য সফর করেন। সর্বশেষ মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনের মধ্যপ্রাচ্য সফর কোনো সমাধান ছাড়াই শেষ হয়েছে।

এরপর দুই দিনের সফরে মধ্যপ্রাচ্যে পৌঁছে ব্যস্ত সময় পার করছেন ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিন-ইভেস লি দারিয়ান। শনিবার সৌদি আরবের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও যুবরাজের সঙ্গে সাক্ষাতের পর কাতারে পৌঁছান তিনি।

সেখানে কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর রোববার কুয়েতে যান ফরাসি এই পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কুয়েতে পৌঁছে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ সাবাহ খালেদ আল-হামাদ আল-সাবাহ’র সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন জিন। রোববার কুয়েতের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কুনা এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

কাতারের সঙ্গে প্রতিবেশী দেশগুলোর কূটনৈতিক সংকটের সমাধানে মধ্যপ্রাচ্য সফর করছেন জিন। মধ্যপ্রাচ্যের এ সংকট সমাধানে মধ্যস্থতা করছে কুয়েত।

এদিকে যুদ্ধাপরাধ, মানবাধিকার, সন্ত্রাস ও প্রত্যর্পণ বিষয়ে আন্তর্জাতিক আইন বিশেষজ্ঞ টবি কিডম্যান বলেছেন, ‘কাতারের ওপর সৌদি আরব ও অন্য তিন দেশের আরোপিত অবরোধ ও তাদের বেঁধে দেয়া শর্তের আইনি কোনো ভিত্তি নেই।’

কাতারি দৈনিক আল-শার্ককে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, ‘আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী কাতারের বিরুদ্ধে নেয়া ওই পদক্ষেপ বেআইনি এবং তারা শাস্তিমূলক পদক্ষেপ নিয়েছে।’

 

SHARE