কয়রায় পুকুর থেকে মাদ্রাসা শিক্ষকের গলাকাটা লাশ ও রক্তমাখা বটি উদ্ধার

কয়রা প্রতিনিধি ॥ কয়রায় মাদ্রাসা শিক্ষক ষাটোর্দ্ধ আব্দুল হাই শেখের গলাকাটা লাশ উদ্ধার হয়েছে। বৃহষ্পতিবার ভোর রাতে উপজেলা সদরের ৪নং কয়রা গ্রামে তার নিজ বাড়ির পাশের একটি পুকুর থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ সময় পুকুরপাড় থেকে রক্তমাখা একটি বটি উদ্ধার হয়েছে। এ ব্যাপারে কয়রা থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। মামলা নং-১৫/১৭। এটি আত্মহত্যা নাকি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড তা পুলিশ খতিয়ে দেখছে।
পুলিশ এলাকাবাসি ও নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানাযায়, ৪নং কয়রা গ্রামের মৃত আলহাজ শহর আলী শেখের পুত্র ৪নং কয়রা সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ছিলেন মাও আব্দুল হাই। তিনি ভোরে নামাজ পড়তে যাওয়ার কথা বলে ঘর থেকে বের হন। সকালে ঘুম থেকে উঠে তার স্ত্রী শাহানা সুলতানা বেবি বসত ঘরের পার্শে পুকুরে তার স্বামীর গলাকাটা লাশ ভাসতে দেখে চিৎকার দেন। এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে কয়রা থানার ওসি তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মর্গে পাঠান। এ সময় পুলিশ পুকুর পাড় থেকে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা একটি বটি উদ্ধার করে। তার দুই স্ত্রী থাকায় দির্ঘদিন যাবৎ সংসারে পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। তিনি এরআগেও কয়েকবার আতœত্ব্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হন বলে তার পারিবারিক সুত্রে জানানো হয়েছে। নিহতের বড় স্ত্রী তালাক প্রাপ্ত হওয়ায় দির্ঘদিন যাবৎ গোবরা গ্রামে পিতার বাড়িতে বসবাস করেন। ছোট স্ত্রী দুই ছেলে এক মেয়ে নিয়ে ৪নং কয়রা গ্রামের বাড়িতে বসবাস করেন। কয়রা থানার ওসি এনামুল হক জানান, এটি হত্যা নাকি আতœহত্যা ময়না তদন্ত প্রতিবেদন ও তদন্ত থেকে বের হয়ে আসবে।

SHARE