fashi
সমাজের কথা ডেস্ক॥ কুষ্টিয়ায় সাড়ে পাঁচ বছর আগে কৃষক সবুজ হত্যার ঘটনায় করা মামলার বিচার শেষে দুই আসামির ফাঁসির রায় দিয়েছে আদালত।

এরা হলেন- দৌলতপুর উপজেলার দিঘলকান্দী গ্রামের আমির উদ্দীনের ছেলে রুবেল (১৮) ও মুরাদ আলীর ছেলে সুজন (২০)।

বৃহস্পতিবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রেজা মো. আলমগীর এ রায় দেন বলে আদালতের পিপি অনুপ কুমার নন্দী জানিয়েছেন।

আদালতে বাদী পক্ষের কৌসুঁলি ছিলেন অনুপ কুমার নন্দী ও আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার সিরাজুল ইসলাম।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১১ সালের ৯ই সেপ্টেম্বর একই গ্রামের ছিন্টু মোল্লার ছেলে সবুজের (৩১) মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে ১২ কিলোমিটার দূরে মিরপুর বাজারে ডেকে নিয়ে যায় রুবেল ও সুজন।

পরে মিরপুর রেল লাইনের পাশে সবুজের লাশ পাওয়া গেলেও তার মোটরসাইকেলটি পাওয়া যায়নি। পরদিন নিহতের চাচা মনিরুল ইসলাম বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় মামলা করেন।

ওই দুজনকে গ্রেপ্তারের পর সবুজের মোটরসাইকেল ও মোবাইল ফোনও উদ্ধার করে পুলিশ।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অনুপ বলেন, “আসামিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ও মামলার সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় আদালত সর্বোচ্চ সাজা দিয়েছেন।”

এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে বলে আসামি পক্ষের আইনজীবী জানান।

SHARE