bond
সমাজের কথা ডেস্ক॥ মেহেরপুর সদর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে এক জামায়াতকর্মী নিহত হয়েছেন, যার বিরুদ্ধে থানায় নাশকতার মামলা রয়েছে।

সদর থানার ওসি আহসান হাবিব জানান, রোববার রাত আড়াইটার দিকে সদরের বন্দর শ্মশানঘাট এলাকায় গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রমজান আলী (৪২) সদরের পিরোজপুর ইউনিয়নের বারাদী রাজনগর গ্রামের আমির শেখের ছেলে।

ওসি বলেন, “রমজান জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তার বিরুদ্ধে পুলিশের ওপর হামলা ও নাশকতার অভিযোগে সাতটি মামলা রয়েছে।”

পুলিশ বলছে, একদিন আগে রমজানকে গ্রেপ্তার করা হয়। অস্ত্র উদ্ধারের জন্য রোববার রাতে তাকে নিয়ে শ্মশানঘাট এলাকায় অভিযানে গেলে সেখানেই গোলাগুলি হয়।
ওসি বলেন, “রমজানের সহযোগীরা পুলিশের দিকে গুলি ছোড়ে। জবাবে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এক পর্যায়ে রমজান গুলিবিদ্ধ হয়। মেহেরপুর সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।”

তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে দুটি গুলি এবং একটি দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযানের মধ্যে চার পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

আহত এসআই মেজবাহুল, এএসআই আব্দুল হক, কনস্টেবল শাহীন ও আশরাফুল ইসলাম মেহেরপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

SHARE