Meherpur

সমাজের কথা ডেস্ক॥

জেলার সদর উপজেলায় পুলিশের সঙ্গে ‘কথিত বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সর্দার কালা গাঙ্গা ওরফে খোকন ডাকাত (৪২) নিহত হয়েছেন। এ সময় আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি, ধারালো অস্ত্র ও হাতবোমা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২০ মে) ভোরে সদর উপজেলার রাজনগর এলাকার দ্বীনদত্ত ব্রিজের দুইশ’ গজ দূরে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, নিহত কালা গাঙ্গা মেহেরপুর শহরের শিশু বাগানপাড়া এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। তার বাবার নাম ভানু মন্ডল।

এ ঘটনায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রফিকুল ইসলাম, উপ-পরিদর্শক (এসআই) কৃষ্ণপদ দাস ও কনস্টেবল মিনহাজ উদ্দীন আহত হয়েছেন। আহত পুলিশ সদস্যদের মেহেরপুর সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

মেহেরপুর পুলিশ সুপার (এসপি) হামিদুল আলম বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এসপি হামিদুল জানান, হত্যা ও ডাকাতিসহ ছয়টি মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি কালা ডাকাত দীর্ঘদিন ধরে পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছিল। মঙ্গলবার বিকেলে মেহেরপুর সদর থানা পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কলেজ মোড় এলাকা থেকে তাকে আটক করে।

তিনি জানান, এদিকে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছে আগ্নেয়াস্ত্র, গুলি ও বোমা থাকার কথা স্বীকার করে। তার দেওয়া তথ্য মতে রাতে পুলিশের একটি দল কালা ডাকাতকে সঙ্গে নিয়ে অস্ত্রের ভা-ারের খোঁজে নামে। পুলিশের একটি দল ডাকাত সর্দার কালাকে নিয়ে রাজনগর এলাকায় যাওয়ার সময় তার সহযোগী ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে একাধিক হাতবোমা নিক্ষেপ ও গুলি চালায়। ডাকাতদের গুলির জবাবে পুলিশও আত্মরক্ষায় পাল্টা গুলি করে। এ সময় ডাকাত সর্দার গাঙ্গা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে উভয়পক্ষের গোলাগুলির মধ্যে ক্রস ফায়ারে নিহত হন।

SHARE