MEHERPUR
সমাজের কথা ডেস্ক॥
আসামি ধরতে গিয়ে গলায় কোপ খেয়েছেন মেহেরপুর সদর থানার উপ সহকারী পরিদর্শক (এএসআই) ইকরামুল হক।

শনিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার রাজনগর গ্রামে আসামি ধরতে গিয়ে হামলার শিকার হন পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

খবর পেয়ে সদর থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে ইকরামকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। হামলাকারীরা ওই কর্মকর্তার গলায় ও হাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়েছে। ঘটনার পর হামলাকারীদের ধরতে রাজনগরসহ আশেপাশ গ্রামে অভিযান চালায় পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পারিবারিক আদালতের একটি মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানাভূক্ত আসামি রাজনগর শেখপাড়ার বাবর আলীকে গ্রেপ্তারের উদ্দেশে ওই গ্রামে যান এএসআই ইকরামুল হক ও অপর এক কনস্টবল। সিভিল পোশাকে গিয়ে তারা বাবর আলীর প্রতিবেশি আশরাফুলের কাছে তার সম্পর্কে খোঁজ নেন। এ নিয়ে পুলিশের সঙ্গে আশরাফুলের বাকবিতণ্ডা শুরু হয়।

এক পর্যায়ে আশরাফুল ক্ষিপ্ত হয়ে তার হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র (হেসো) দিয়ে ইকরামুলের গলায় ও বাম হাতে কোপ দিয়ে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে সদর থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ইকরামকে উদ্ধার করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. অলোক কুমার দাস বাংলামেইলকে বলেন, ইকরামের গলায় ও বাম হাতে কয়েকটি সেলাই দেয়া হয়েছে। তবে আশঙ্কামুক্ত।

মেহেরপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার শেখ বাংলামেইলকে বলেন, ঘটনার পরে রাজনগরসহ আশেপাশের গ্রামগুলোতে হামলাকারীকে ধরতে অভিযান চলছে।

SHARE