কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাসদ নেতাকে গুলি করে হত্যা

kustia
সমাজের কথা ডেস্ক॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা জাসদের সাবেক সহ-সভাপতি ঈসমাইল হোসেন পাঞ্জের (৫৫) দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হয়েছেন। এসময় গুলিবিদ্ধ হয়েছেন শফিকুল ইসলাম নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা।

সোমবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে উপজেলার আহাম্মদপুর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

উপজেলা জাসদের সাবেক সহ-সভাপতি পাঞ্জের আহাম্মদপুর এলাকার বাসিন্দা।

আহত শফিকুল ইসলাম উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

নিহত পাঞ্জেরের ছেলে মিটুল জানান, প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালেও তার বাবা হাঁটতে বের হন। হাঁটা শেষে তিনি বাড়ির পাশের একটি চায়ের দোকানে বসেছিলেন। এসময় সেখানে শফিকুল ইসলামও ছিলেন। এসময় তিনজন দুর্বৃত্ত একটি মোটরসাইকেলে করে এসে পাঞ্জেরের বুকে অস্ত্র ঠেকিয়ে পর পর তিন রাউন্ড গুলি ছোড়ে। আওয়ামী লীগ নেতা শফিকুল এসময় চিৎকার করলে দুর্বৃত্তরা তাকে লক্ষ্য করে এক রাউন্ড গুলি ছুড়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা দ্রুত গুলিবিদ্ধ দু’জনকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক পাঞ্জেরকে মৃত ঘোষণা করেন। গুলিবিদ্ধ শফিকুলের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে। উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা পাঠানো হয়েছে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, ঈসমাইল হোসেন পাঞ্জের পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে হত্যাসহ ১০টিরও বেশি মামলা রয়েছে। ২০ মার্চ তিনি একটি হত্যা মামলায় জামিন পান।

এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় দুলালের সঙ্গে পাঞ্জেরের বিরোধ চলছিল বলেও ওসি জানান।

SHARE